1. admin@dipanchalnews.com : dipanchalAd :
রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ০৩:০৫ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ সংবাদ
মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে বরগুনায় সংবাদ সম্মেলন বরগুনার নব নির্বাচিত সাংসদ টুকুকে সংবর্ধনা দিলেন কেওড়াবুনিয়া ইউনিয়নবাসী বামনায় চেয়ারম্যানের মুক্তির দাবীতে মানববন্ধন তালতলীতে অবৈধ ক্লিনিক পরিচালনার দায়ে ১ মাসের কারাদণ্ড বরগুনার অনিবন্ধিত ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার বন্ধের নোটিশ নির্বাচনী পোষ্টার, ব্যানার, ফেস্টুন শহরের সৌন্দর্য নষ্ট করছে বামনায় মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ বরগুনায় স্টার হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্টের সুনাম নষ্ট করতে মরা মুরগী বিক্রির ভিডিও তৈরী করা হয় মোটরসাইকেল চলাচলে নতুন নীতিমালা পাটুরিয়া ঘাটে ডুবে যাওয়া ফেরির একটি কাভার্ড ভ্যান উদ্ধার

মঠবাড়িয়ার সাবেক ওসির বিরুদ্ধে জাপা নেতার পা বিচ্ছিন্নের অভিযোগ

  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১৮ জানুয়ারী, ২০২৪
  • ৪২ Time View

মঠবাড়িয়া সংবাদদাতা: পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় ১৫ মাস পূর্বে জাপা (এরশাদ) নেতা মো. শফিকুল ইসলামের পা নির্মমভাবে কুপিয়ে বিচ্ছিন্নের ঘটনায় মঠবাড়িয়া থানার সাবেক ওসি মো. নূরুল ইসলাম বাদলের ইন্ধন রয়েছে বলে পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট বরাবরে লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।
পিরোজপুর পুলিশ সুপার শফিকুল ইসলামের অভিযোগটি তদন্ত পূর্বক প্রতিবেদন দাখিলের দায়িত্ব দেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মঠবাড়িয়া সার্কেল) এর ওপর। শফিকুল ইসলাম উপজেলা জাতীয় পার্টির সাংগঠনিক সম্পাদক ও উপজেলার তুষখালী গ্রামের মোঃ আইয়ূব আলী শিকদারের ছেলে।
লিখিত অভিযোগ ও ভুক্তভোগী সূত্রে জানা যায়, মঠবাড়িয়া থানায় কর্মরত থাকা কালে ওসি নূরুল ইসলাম বাদল তাকে ২০২১ সালের ২১ জুলাই সন্ধ্যায় এসআই পলাশ চন্দ্র রায়ের মাধ্যমে থানায় ডেকে ৫০ হাজার টাকা দাবী করেন। পরে তার স্বজনরা ওসিকে ৬ হাজার ও এসআইকে ৩ হাজার টাকা দিলেও তাকে মুক্তি দেয়া হয়নি। রাত ১১টার দিকে ওসির রুমে তার সামনে বসে থানার দালাল সগির মেম্বার এবং তুষখালী ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের ছেলে শামীম আহমেদ তাকে মারধর করেন। পরে সগির মেম্বারের কথায় তাকে মিথ্যা মামলায় জেল হাজতে পাঠান। ২১ দিন হাজতবাস করে বের হবার পরেও বিভিন্ন সময়ে ওসি তাকে নানাভাবে হয়রানি করতে থাকেন। এসব বিষয়ে তিনি পরবর্তীতে স্ব—রাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, আইজিপি, ডিআইজির কাছে লিখিত অভিযোগ দেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ওসি বাদল ২০২২ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর তাকে অভিযোগ তুলে নেয়ার হুমকি দিয়ে বলেন, সব অভিযোগ তুলে না নিলে কুপিয়ে হাত—পা কেটে ফেলা হবে। এমনকি প্রাণেও মেরে ফেলার হুমকি দেন। হুমকির দু’দিন পরে (২৯ সেপ্টেম্বর‘২২)মামলা সংক্রান্ত কাজে বাড়ি থেকে মঠবাড়িয়া আসার পথে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ওসি বাদলের ইন্ধনে এবং সগির মেম্বারের নেতৃত্বে ছয়—সাত সন্ত্রাসী মাঝেরপুল নামক স্থানের ফরাজি বাড়ির সামনে তাকে (শফিকুল) কুপিয়ে বাম পা গোড়ালি থেকে বিচ্ছিন্ন করে ফেলে। এসময় ডান হাতের রগ কাটে এবং ভুঁড়ি বের করে ফেলে। জাপা (এরশাদ) নেতা মো. শফিকুল ইসলাম তাঁর পা বিচ্ছিন্নের নেপথ্যে মঠবাড়িয়া থানার সাবেক ওসি মো. নূরুল ইসলাম বাদলের ইন্ধন রয়েছে এমন অভিযোগ এনে তিনি (শফিকুল) একাধিক বার সংবাদ সম্মেলনও করেছিলেন।
মঠবাড়িয়া থানার সাবেক ওসি নূরুল ইসলাম বাদল অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমাকে অহেতুক হয়রানী করা হচ্ছে। তবে তিনি বর্তমানে কোথায় কোন অবস্থায় রয়েছেন, তা স্পস্ট করেন নি (০১৭১১—৯৭৭১১১)।
অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মঠবাড়িয়া সার্কেল) মো. সাখাওয়াত হোসেন সংবাদিকদের জানান, অভিযোগটি তদান্তাধীন রয়েছে। এটা গুরুপ্ত সহকারে তদন্ত করা হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2024 The Daily Dipanchal
Customized By BlogTheme